বেছে নিন আপনার জন্য সবচেয়ে মানানসই সানগ্লাস

0 2

বড় ফ্রেমের সানগ্লাস পরা নিঃসন্দেহে ‘ইন ফ্যাশন’। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবে মুখের তুলনায় খুব বেশি বড় ফ্রেমের সানগ্লাস ব্যবহার করলে মাথা ব্যথা হতে পারে। চাপ পড়তে পারে কানের পাশে বা নাকের ওপরও। তা ছাড়া সানগ্লাস অবশ্যই মুখের গড়নের সঙ্গে মানানসই হতে হবে। সুতরাং, সানগ্লাস হওয়া চাই সামঞ্জস্যপূর্ণ।

সানগ্লাস কেনার আগে অনেকেই বুঝতে পারেন না কেমন সানগ্লাস কেনা উচিত। আপনি কতক্ষণ বাইরে কাটান, সেই অনুযায়ী বেছে নিন আপনার সানগ্লাস। ডার্ক শেডের সানগ্লাস মানেই তা লাইট শেডের সানগ্লাসের চেয়ে চোখকে বেশি সুরক্ষা (প্রোটেশন) দেবে, তার কিন্তু কোনও মানে নেই। এমন সানগ্লাস কিনুন যা অন্তত ৯৯% থেকে ১০০% সূর্যের ইউভিএ এবং ইউভিবি রশ্মি থেকে আপনার চোখকে বাঁচাতে পারে। দেখে নিন, সানগ্লাসের টেম্পল আর্ম যথেষ্ট বড় কিনা! তা না হলে সানগ্লাসের পাশ দিয়ে আলো ঢুকতে পারে। এ বার দেখে নেওয়া যাক, কোন ধরনের মুখের গড়নের সঙ্গে কী রকম সানগ্লাস মানানসই হবে।

• ত্রিকোণাকার মুখে রঙিন ফ্রেমের চশমা ভালো মানাবে। বাছতে পারেন ক্যাটস-আই রোদচশমাও। আর সানগ্লাসের উপরের অংশ যদি সমান্তরাল হয়, তাহলে তো আর কথাই নেই!

• আয়তাকার মুখের জন্য কেনা উচিত চওড়া ফ্রেমের সানগ্লাস। গোল বা চৌকো, কিনুন নিজের মুখের গড়নের সঙ্গে মানিয়ে।

• গোলাকার মুখে পরতে পারেন আয়তাকার ফ্রেমের সানগ্লাস। যাতে আপনার গোল চেহারা অনেকটা লম্বাটে দেখায়, তাঁর জন্য বেঁছে নিতে হবে এমন ধরনের সানগ্লাস।

• ডিম্বাকার মুখে সব ধরনের ফ্রেমের চশমা দেখতে ভালো লাগে। তাই বদলে বদলে বিভিন্ন ধরনের সানগ্লাস ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে চারকোনা আকৃতি বা পুরো চোখ মোড়ানো থাকবে এমন ধরনের সানগ্লাসে বেশি ভালো লাগবে।

• চতুর্ভুজাকার ধরনের মুখের গড়নের জন্য বেছে নিন গোলাকার, ডিম্বাকার ফ্রেমের সানগ্লাস। পাতলা ও নরম ফ্রেমেও বেশ মানাবে। বাছতে পারেন ক্যাটস-আইয়ের মতো সানগ্লাসও।

• কারও মুখের আকার যদি হীরকের মতো হয়, তাহলে পছন্দ করুন রিমলেস ফ্রেমের রোদচশমা। এটি বেশি ভালো মানাবে। কিনতে পারেন ডিম্বাকার ফ্রেমের সানগ্লাসও।

সূত্রঃ ২৪ঘন্টা