অনন্য অর্জন বাংলাদেশের: ব্যাকটেরিয়া নির্ণয় পদ্ধতি আবিষ্কার বাংলাদেশী বিজ্ঞানীর

0 7

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশি বিজ্ঞানী ড. প্রদীপ সরকারসহ ৬ জনের একটি গবেষণা দল অল্প খরচে সঠিকভাবে ব্যাকটেরিয়া ইনফেকশন নির্ণয় করার একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন। এর মাধ্যমে  চিকিৎসা বিজ্ঞানের এক নতুন দ্বার উন্মোচিত হতে যাচ্ছে।

 

এই আবিষ্কারের ফলে দ্রুততম সময়ে সংক্রমণ নির্ণয় করার মাধ্যমে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করে সংক্রমণ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হবে। জানা গেছে প্রথমে নতুন আবিষ্কৃত এই পদ্ধতি প্রাণীর উপর প্রয়োগ করে এর কার্যকারিতা পরীক্ষা করে দেখার পর ক্লিনিকাল টেস্টের জন্য পাঠানো হবে।

 

উল্লেখ্য, যুক্তরাজ্যের রয়াল সোসাইটি কর্তৃক ১০ হাজার পাউন্ড অনুদানপ্রাপ্ত এই গবেষণা দলটির লীড সায়েন্টিস্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন নেতৃত্বে ছিলেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী ড. প্রদীপ সরকার। তার নেতৃত্বে প্রায় ৩ বছর ধরে এই বিষয়ে গবেষণা চালিয়েছে দলটি। বিজ্ঞান বিষয়ক পাঁচটিরও বেশী জার্নালে তাদের গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

 

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা থানার বারইহুদা গ্রামে ড. প্রদীপ সরকারের জন্ম। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলিত রসায়ন বিভাগের ছাত্র ড. প্রদীপ সরকার বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনে বিজ্ঞানী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরে তিনি যুক্তরাজ্যের সেফিল্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। বর্তমানে তিনি যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একটি বায়োটেক কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান গবেষক।

 

এই আবিষ্কারের ফলে দ্রুততম সময়ে সংক্রমণ নির্ণয় করার মাধ্যমে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করে সংক্রমণ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হবে বলে বলেছেন ড. প্রদীপ সরকার।

 

নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের বিজ্ঞান ব্যবস্থা এবং সমগ্র বাংলাদেশের জন্য এটি একটি অনন্য অর্জন এবং গর্বের বিষয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ অর্জনের জন্য প্রদীপ সরকার এবং তার সম্পূর্ণ গবেষণা দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং তাদের যেকোনো পরিমাণে সাহায্য সহযোগিতার জন্য পূর্বের ন্যায় ভবিষ্যতেও তাদের পাশের থাকার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে ।

 

বর্তমান সরকার সব সময়ই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমুখী সরকার  এবং  যারা এ ধরনের গবেষণামূলক কাজে নিয়োজিত থাকেন তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় এগিয়ে এসে পর্যাপ্ত পরিমাণে সাহায্য সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দেয়, যাতে খুব দ্রুতগতিতে বাংলাদেশ এগিয়ে যায় ডিজিটাল বাংলাদেশ হওয়ার লক্ষ্যে।